প্রকাশ : ২৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০৩:১৪:৫৯
ঢাকায় নিহত জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আবু বকর আবুর দাফন
বাংলাদেশ বাণী, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যশোর-৬ কেশবপুর আসনে বিএনপি দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী যশোর জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও কেশবপুরের মজিদপুর ইউনিয়নের বারবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান আবু বকর আবুর দাপন সম্পন্ন হয়েছে।
গত শুক্রবার বিকালে জানাজা নামাজ শেষে উপজেলার বাগদাহ গ্রামের পারিবারিক কবর স্থানে তাকে দাফন করা হয়। তার প্রথম জানাজা নামাজ কেশবপুর পাবলিক ময়দানে ও দ্বিতীয় জানাজা নামাজ তার জন্মস্থান বাগদাহ গ্রামে অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজা নামাজের আগে আবু বকর আবুর কফিনে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জননেতা তারেক রহমান ও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীরের পক্ষে কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, যশোর জেলা বিএনপির পক্ষে সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, যশোর নগর বিএনপির পক্ষে সাবেক মেয়র মারুফুল ইসলাম, থানা বিএনপির পক্ষে আলহাজ্ব আবুল হোসেন আজাদ, পৌর বিএনপির পক্ষে সাবেক মেয়র আল্হাজ্ব আব্দুস সামাদ বিশ্বাস ও চেয়ারম্যান প্রভাষক আলা উদ্দীন আলা, জেলা যুবদলের পক্ষে আনছারুল ইসলাম রানা, থানা যুবদলের পক্ষে আলমগীর সিদ্দিক, থানা ছাত্রদলের পক্ষে বাবুল রানা বাবুসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও পেশাজীবি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ফুল দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সংক্ষিপ্ত বক্তব্য প্রদান করেন।

এর আগ তার অর্ধগলিত লাশ বেলা সাড়ে ১২টার দিকে বাগদাহ গ্রামে পৌছালে সেখানে উপস্থিত দলীয় নেতা-কর্মিসহ এলাকার শত-শত মানুষ কান্নায় ভেঙে পড়ে। শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাতে বাগদাহ গ্রামে ছুটে যান কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, জেলা সম্মেলোন প্রস্তুত কমিটির সভাপতি অধ্যাপিকা নারসি ইসলাম, কেন্দ্রীয় বিএনপির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও যশোর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, কেন্দ্রীয় বিএনপির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও থানা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব আবুল হোসেন আজাদসহ জেলা ও উপজেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

তাঁর জানাজা নামাজে উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, যশোর জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শামছুল হুদা, কেন্দ্রীয় বিএনপির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, কেন্দ্রীয় বিএনপির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও থানা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব আবুল হোসেন আজাদ, মতিয়ার রহমান ফারাজি, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন খোকন, কেন্দ্রীয় সেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, জামায়াতের থানা আমির অধ্যাপক মুক্তার আলী, পৌর বিএনপির সভাপতি সাবেক মেয়র আল্হাজ্ব আব্দুস সামাদ বিশ্বাস, থানা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মশিয়ার রহমান, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক চেয়ারম্যান প্রভাষক আলা উদ্দীন আলা, সাংগঠনিক সম্পাদক কুতুব উদ্দীন বিশ্বাস, ত্রিমোহীনি ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক রেজাউল ইসলাম, যুগ্ম-আহবায়ক আলমগীর কবির ডালু, সাঁগরদাড়ি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মাস্টার আমানত আলী, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ জাফর হাসান লাবলু, সাংগঠনিক সম্পাদক আকরাম খান, মজিদপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি প্রভাষক আব্দুর রাজ্জাক, সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহীম হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাস্টার রবিউল ইসলাম, বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ম-আহবায়ক মাস্টার আবুল কাশেম, সদর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মাস্টার শফিক, সাধারণ সম্পাদক মাস্টার রেজাউদ্দৌলা নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মাস্টার আব্দুস সাত্তার বাবলু, পাঁজিয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান এন্তাজ গাজি,, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম, সুফলাকাটি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আফছার সরদার, সাধারণ সম্পাদক সাবেক চেয়ারম্যান কবির হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাস্টার মহির উদ্দীন, গৌরিঘোনা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি বাবর ্অলী গাজি, সাধারণ সম্পাদক অমেদ আলী, হাসানপুর ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক চেয়ারম্যান প্রভাষক জুলমত আলী, যুগ্ম-আহবায়ক মাহবুবর রহমান মল্লি¬ক, সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক জামাল উদ্দীন, যুগ্ম-আহবায়ক গোলাম মোস্তফা বাবু প্রমুখসহ জেলা ও থানা যুবদল, সেচ্ছাসেবকদল, কৃষকদল, ছাত্রদল ও বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

আবু বকর আবুর পারিবারিক সূত্রে জানায়, আবু বকর আবু নিখোঁজের ৪ দিন পর ঢাকার মিডফোর্ট হাসপাতাল মর্গে তার লাশ পাওয়া যায়। গত ১৮ নভেম্বর রাত ৮ টার পর রাজধানীর পল্টন এলাকা থেকে তিনি নিখোজ হন।

তাকে মুক্তির জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দেয়া হলেও তার কোন মুক্তি মেলেনি। তিনি মনোনয়নপত্র ক্রয় ও জমা দেয়ার জন্য ১২ নভেম্বর ঢাকা যান। সেখানে পল্টন এলাকার মেট্রপলিটন হোটেলের ৪১৩ নম্বর কক্ষে অবস্থান নেন।

১৯ নভেম্বর বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার জন্য সেখানে অবস্থান করতে থাকেন। ঘটনার দিনের রাত ৮টার দিকে তার সঙ্গী ইউপি মেম্বার সাইফুল ইসলাম রুমে ফিরে এসে তাকে রুমে পাননি।  রাত সাড়ে ৮ টার দিকে একটি মোবাইল ফোন থেকে তার কেশবপুরস্থ ভাগ্নের মোবাইল ফোনে কয়েকটি মিসকল আসে।

প্রত্যেকবার এ নম্বরটিতে কল ব্যাক দিলে হ্যালো, হ্যালো ছাড়া কোন কথা হয়নি। অপহরণকারীরা ওই ভাগ্নের কাছে ফোন দিয়ে তার মামার জন্য দেড় লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। এ জন্য ওই রাতে কয়েকটি বিকাশ নম্বরও সরবরাহ করে তারা। কিন্তু রাত ১২ টার পর বিকাশের ট্রানজিট বন্ধ থাকায় সোমবার সকালে অপহরণকারীরা পুণরায় যোগাযোগ করে।

এরপর তাদের দেওয়া বিভিন্ন নম্বরে দেড় লাখ টাকা বিকাশ করা হয়। পরবর্তীতে সকাল ৯টার দিকে অপহরণকারীরা দেড় লাখ টাকার প্রাপ্তি স্বীকার করে আরও ৫০ হাজার টাকা দাবি করে। বহু অনুরোধের পর অপহরণকারীরা ২০ হাজার টাকা বিকাশ করার জন্য ২টি নম্বর সরবরাহ করে বলে, ওই টাকা পাওয়ার আধা ঘন্টার মধ্যে আবু বকর আবুকে ওই হোটেলের সামনে ছেড়ে আসা হবে। সাড়ে ১০টার দিকে ২০হাজার টাকা বিকাশ করার পরও তাকে ছাড়া হয়নি এবং তারা আর মোবাইল রিসিভ করেনি।

উল্লেখ্য, অবিবাহিত ৭২ বছর বয়সী আবু বকর আবু ১৯৮০ সালে থানা বিএনপির সাংগঠনি সম্পাদক, ১৯৮২ সালে থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক, ১৯৮৭ সালে থানা বিএনপির আহ্বায়ক, ১৯৮৮ থেকে  ২০০১ সাল পর্যন্ত থানা বিএনপির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি ২০০৯ সালে যশোর জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়ে  দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া মজিদপুর ইউনিয়ন থেকে ৪ বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন

 
সর্বশেষ সংবাদ
  • রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত টিম এখন ঢাকায়বিএনপি-জামায়তের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধুর জন্য জাতিসংঘে সদরদপ্তরে প্রথমবারের মতো জাতীয় শোক দিবসক্রস ফায়ারের মাঝেও মানব পাচার! থেমে নেই অস্ত্র ও ইয়াবা ব্যবসারোববার কবি শামসুর রাহমানের ১৩ তম মৃত্যুবার্ষিকীঢাকা-দিল্লীর সম্পর্ক এখন নতুন উচ্চতায় : বাংলাদেশ হাইকমিশনারছয় বছর বয়সেই ইসি'র স্মার্টকার্ডবঙ্গবন্ধু বাংলার ইতিহাস : স্বাধীনতা বাঙ্গালীর সোনালী অর্জন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে জিয়ার যোগাযোগ ছিল : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে : আইনমন্ত্রী২২ আগস্ট শুরু হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাঙালীর বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জাতির জনক মাশরাফির অবসর নিয়ে দু'দিনের মধ্যেই আলোচনায় বসবে বিসিবিটুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনবঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক চেষ্টা চলছে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচনে ‘কমিশন’ গঠনের দাবি জানালেন তথ্যমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ও সর্বস্তরের জনতার বিনম্র শ্রদ্ধাজাতীয় শোক দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র বাণীআজ জাতীয় শোক দিবস : টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের অপরাধটা কি? সব খুনিদের বিচার হোক
  • রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত টিম এখন ঢাকায়বিএনপি-জামায়তের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধুর জন্য জাতিসংঘে সদরদপ্তরে প্রথমবারের মতো জাতীয় শোক দিবসক্রস ফায়ারের মাঝেও মানব পাচার! থেমে নেই অস্ত্র ও ইয়াবা ব্যবসারোববার কবি শামসুর রাহমানের ১৩ তম মৃত্যুবার্ষিকীঢাকা-দিল্লীর সম্পর্ক এখন নতুন উচ্চতায় : বাংলাদেশ হাইকমিশনারছয় বছর বয়সেই ইসি'র স্মার্টকার্ডবঙ্গবন্ধু বাংলার ইতিহাস : স্বাধীনতা বাঙ্গালীর সোনালী অর্জন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে জিয়ার যোগাযোগ ছিল : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে : আইনমন্ত্রী২২ আগস্ট শুরু হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাঙালীর বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জাতির জনক মাশরাফির অবসর নিয়ে দু'দিনের মধ্যেই আলোচনায় বসবে বিসিবিটুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনবঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক চেষ্টা চলছে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচনে ‘কমিশন’ গঠনের দাবি জানালেন তথ্যমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ও সর্বস্তরের জনতার বিনম্র শ্রদ্ধাজাতীয় শোক দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র বাণীআজ জাতীয় শোক দিবস : টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের অপরাধটা কি? সব খুনিদের বিচার হোক
উপরে