প্রকাশ : ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০৩:০৮
রক্তঋনে কেনা, কারো দানে নয় !
‘অমর একুশের সিঁড়ি বেয়ে আমার বাংলা মায়ের কোল’
কাজী আব্দুস সামাদ : (পূর্ব প্রকাশরে পর) স্বাধীনতা-পরবর্তী চার দশকজুড়েই বাংলা ও বাঙালির বিরুদ্ধে নানামুখী ষড়যন্ত্র হয়েছে এবং তা এখনো অব্যাহত আছে। কখনো তা দৃশ্যমান হয়েছে, কখনো তা অদৃশ্যই থেকে গেছে। এখন একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধীদের বিচারকে কেন্দ্র করে সেই পাকিস্তানি প্রেতাত্মারা আবার নতুন করে হামলে পড়তে চাইছে। তাই এবারের একুশে আমাদের নতুন প্রত্যয়ে, নতুন বিশ্বাসে এগিয়ে যাওয়ার শপথ নিতে হবে।

তাই ‘একুশ’ এবং ‘মাথা নত না করা’র চেতনাকে একসাথে পাঠ করতে হবে যাতে যথাযথভাবে উপলব্ধি করা যায়, কীভাবে মহান একুশের আদর্শে বাঙালির প্রতিরোধের চরিত্র নির্মিত হয়। এর ভেতর দিয়ে বাঙালি ভাষা আন্দোলনের সড়ক বেয়ে মুক্তিসংগ্রামের মহাসড়কে উপনীত হয়।

‘মহান একুশে’র চেতনা এবং ‘মাথা নত না করা’র দর্শনকে একসাথে উপলব্ধি করার প্রয়োজন আছে। কেননা এ যুক্তপাঠ ‘স্বাধীনতা অর্জনের চেয়ে রক্ষা করা কঠিন’র মতো মহান ব্রত নিয়ে নিত্য মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় প্রদীপ্ত হতে আমাদের প্রেরণা যোগায়।

হাজার বছরের ইতিহাস ঐতিহ্যমণ্ডিত বাংলা সমৃদ্ধ একটি ভাষা। রবীন্দ্রনাথ, নজরুল, জীবনানন্দ দাশের মতো লেখক সৃষ্টি হয়েছে এই ভাষায়ই। কিন্তু সেই ভাষার মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় পরবর্তী সময়ে তেমন কোনো উদ্যোগ কি নেয়া হয়েছে?

সময়ের অভিঘাতে পাল্টে যাচ্ছে সবকিছু। প্রযুক্তি নির্ভর একবিংশ শতাব্দীতে তরুণ প্রজন্মও বাংলা ভাষার প্রতি চরম উদাসীন। অন্যভাষা শেখায় কোনো দোষ নেই। রবীন্দ্রনাথের কখা স্বরণ করে বলতে হয়-‘আগে চাই বাংলা ভাষার গাঁথুনি পরে, ইংরেজি শেখার পত্তন’।

বাঙালি জাতির হাজার বছরের ইতিহাসে আমাদের অমর একুশের অবস্থান অনন্যসাধারণ, মর্যাদায় ভাস্বর। অনেক দেন-দরবার ও কূটনৈতিক তৎপরতার মাধ্যমে আমরা সে সাফল্য অর্জন করি।
১৯৯৯ সালে ইউনেস্কোর ৩০ তম সাধারণ সম্মেলনে বাংলাদেশ সরকারের প্রস্তাবটি সর্বসম্মতভাবে অনুমোদন পাওয়ায় একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি পায়।

একুশের চেতনায় উজ্জীবিত বাঙালি জাতি, জাতির জনকের আপসহীন ও অকুতোভয় নেতৃত্বে আন্দোলন করে স্বাধীনতার পথে এগিয়ে যায়। তারই পথ ধরে স্বাধীকার আন্দোলন, মহান মুক্তিযুদ্ধ ও সবশেষে স্বাধীনতা অর্জন।
আমাদের দেশের ৯৯ শতাংশ মানুষ বাংলায় কথা বলে। বাংলা ছাড়া অন্যান্য ভাষা যাদের মাতৃভাষা, তারাও বাংলা বলতে পারে। অথচ বিশ্বের অধিকাংশ দেশই বহু ভাষাভাষী, সেখানে প্রধান ভাষা একাধিক।

সেসব দেশে ভাষানীতি আছে। যেসব দেশে কোনো ভাষা আন্দোলন হয়নি, ভাষা সংস্কার নিয়ে কাজ হয়েছে। সর্বস্তরে জাতীয় ভাষা প্রয়োগে অবিচল আনুগত্য দেখায় জনগণ। সেসব দেশে ভাষার অবমাননা বা বিকৃতি শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে গণ্য। (আজ প্রকাশিত হলো ৭ম পর্ব-চলবে)
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত টিম এখন ঢাকায়বিএনপি-জামায়তের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধুর জন্য জাতিসংঘে সদরদপ্তরে প্রথমবারের মতো জাতীয় শোক দিবসক্রস ফায়ারের মাঝেও মানব পাচার! থেমে নেই অস্ত্র ও ইয়াবা ব্যবসারোববার কবি শামসুর রাহমানের ১৩ তম মৃত্যুবার্ষিকীঢাকা-দিল্লীর সম্পর্ক এখন নতুন উচ্চতায় : বাংলাদেশ হাইকমিশনারছয় বছর বয়সেই ইসি'র স্মার্টকার্ডবঙ্গবন্ধু বাংলার ইতিহাস : স্বাধীনতা বাঙ্গালীর সোনালী অর্জন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে জিয়ার যোগাযোগ ছিল : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে : আইনমন্ত্রী২২ আগস্ট শুরু হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাঙালীর বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জাতির জনক মাশরাফির অবসর নিয়ে দু'দিনের মধ্যেই আলোচনায় বসবে বিসিবিটুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনবঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক চেষ্টা চলছে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচনে ‘কমিশন’ গঠনের দাবি জানালেন তথ্যমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ও সর্বস্তরের জনতার বিনম্র শ্রদ্ধাজাতীয় শোক দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র বাণীআজ জাতীয় শোক দিবস : টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের অপরাধটা কি? সব খুনিদের বিচার হোক
  • রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত টিম এখন ঢাকায়বিএনপি-জামায়তের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধুর জন্য জাতিসংঘে সদরদপ্তরে প্রথমবারের মতো জাতীয় শোক দিবসক্রস ফায়ারের মাঝেও মানব পাচার! থেমে নেই অস্ত্র ও ইয়াবা ব্যবসারোববার কবি শামসুর রাহমানের ১৩ তম মৃত্যুবার্ষিকীঢাকা-দিল্লীর সম্পর্ক এখন নতুন উচ্চতায় : বাংলাদেশ হাইকমিশনারছয় বছর বয়সেই ইসি'র স্মার্টকার্ডবঙ্গবন্ধু বাংলার ইতিহাস : স্বাধীনতা বাঙ্গালীর সোনালী অর্জন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে জিয়ার যোগাযোগ ছিল : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে : আইনমন্ত্রী২২ আগস্ট শুরু হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাঙালীর বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জাতির জনক মাশরাফির অবসর নিয়ে দু'দিনের মধ্যেই আলোচনায় বসবে বিসিবিটুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনবঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক চেষ্টা চলছে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচনে ‘কমিশন’ গঠনের দাবি জানালেন তথ্যমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ও সর্বস্তরের জনতার বিনম্র শ্রদ্ধাজাতীয় শোক দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র বাণীআজ জাতীয় শোক দিবস : টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের অপরাধটা কি? সব খুনিদের বিচার হোক
উপরে