প্রকাশ : ৩০ জানুয়ারি, ২০১৬ ২৩:৪৯:২৩
কাজ করছেন যারা ॥ ঝিকরগাছা পৌরসভার উন্নয়নকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি : জামাল পাশা
বাংলাদেশ বাণী টোয়েন্টিফোর ডটকম, আবুল কালাম আজাদ, ঝিকরগাছা (যশোর) অফিস : যশোরের ঝিকরগাছা পৌরসাভার চলমান উন্নয়ন প্রকল্প সমূহকে চ্যালেঞ্জ হিসাবে নিয়েছি বলে মন্তব্য করেছেন মেয়র মোস্তফা আনোয়ার পাশা জামাল। উন্নয়ন সহযোগী সংস্থাগুলোকে আস্থায় নিতে সক্ষম হয়েছি উল্লেখ করে এক একান্ত সাক্ষাতকারে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, কপোতাক্ষ নদ অববাহিকার ঝিকরগাছা পৌরশহর রক্ষাবাধ নির্মাণ, বনায়ন, সৌন্দ্যর্য বর্ধন, রাস্তা নির্মাণ প্যাকেজ প্রকল্প অনুমোদন এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। শতকোটি টাকার এই বরাদ্দ হবে ঝিকরগাছা পৌরউন্নয়নে ‘মেগা প্রজেক্ট।’

এই মোটা অংকের বরাদ্দ প্রাপ্তিতে শতভাগ আশাবাদি উল্লেখ করেন তিনি। উন্নয়নের ছোঁয়ায় ঝিকরগাছা পৌরসভার চেহারা পাল্টে যেতে শুরু করেছে। এদিকে ‘নগর অঞ্চল উন্নয়ন প্রকল্প’ (সিআরডিপি) চলমান তিনটি প্যাকেজ প্রকল্পের কাজ প্রায় বাস্তবায়নের পথে। প্রায় ৩১ কোটি টাকার এসব উন্নয়ন প্রকল্পের রাস্তা-ঘাট, ব্রীজ-কালভার্ট, বক্স ড্রেনেজ, ক্যানেল, ফুটপাত নির্মাণ প্রায় শেষের পথে। এখন চলছে সৌন্দ্যর্য বর্ধনের কাজ।
উন্নয়ন সংস্থা এশিয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) ও জার্মানির কেএফডাব্লিউ এসব প্রকল্প বাস্তবায়নে অর্থায়ান করছে জানান মেয়র মোস্তাফা আনোয়ার পাশা। তিনি বলেন, দ্বিতীয় শ্রেণির পৌরসাভা হওয়ার সত্বেও সীমাবদ্ধতার মধ্যে পৌরসভাকে উন্নয়নের ‘রোল মডেল’ হিসাবে গড়ে তুলতে চাই।

পৌর নির্বাচন আইনি জটিলতার কফিনে বন্দি এবং আপনি সেই কফিনে শেষ পেরেক ঠুঁকে দিয়েছেন? সমালোচকদের এমন মন্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে মেয়র আনোয়ার পাশা বলেন, শুধু ঝিকরগাছা নয়, অনেক পৌরসাভার মেয়াদোত্তীর্ণ হলেও সীমানা সংক্রান্ত আইনি জাটিলতায় নির্বাচন ঝুলে রয়েছে। তাছাড়া বিষয়টি উচ্চ আদালতে বিচারাধীন তাই এ ব্যাপারে কোন মন্তব্য করতে চাই না। তবে আমরাও চাই ঝিকরগাছা পৌরসভার নির্বাচন হোক। তিনি বলেন, আমাদের সংগঠন বাংলাদেশ মিউনিসিপালিটি এ্যাসোসিয়েশন’র (ম্যাব) পক্ষ থেকে আমরা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়কে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছি, আমরা ‘প্রশাসক’ নিয়োগ হতে দিব না। রেলবস্তির হরিজন পল্লীর বাসিন্দাদের স্থায়ী পূনর্বাসন বিলম্বিত হওয়ার কারণ কি? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, পৌরসভার তালিকাভূক্ত পরিচ্ছন্নতা কর্মী ছাড়াও হরিজন পরিবার সংখ্যা অনেক এবং  তা ব্যয়বহুল। স্বদিচ্ছার অভাব নেই। কিন্তু উপযুক্ত জমি না পাওয়ায় তাদের স্থায়ী পূণর্বাসান এই মুহূর্তে সম্ভব নয়। তার পরও তাদের দাবির প্রেক্ষিতে ও মানবিক বিবেচনায় তাদের স্বতন্ত্র বসতি পল্লীতে সাময়িক পূণর্বাসনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তাদের ভাতা বৃদ্ধির ব্যপারটিও বিবেচনাধীন বলে জানান মেয়র মোস্তফা আনোয়ার পাশা।

চলমান উন্নয়ন প্রকল্প ঘিরে ‘জনদুর্ভোগ’ সৃষ্টির ব্যপারে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি সাময়িক অসুবিধার জন্য দু:খ প্রকাশ করে বলেন, অল্প কয়েক দিনের মধ্যে ড্রেনেজ ও রাস্তার কাজ শেষ হবে। মোবারকপুর-ত্রিমোহিনী সড়কটি নির্মাণে বিলম্বিত হওয়ায় ধুলা-বালিতে জনদুর্ভোগ চরমে এবং জনস্বাস্থ্য হুমকির মুখে! এমন প্রশ্নে তিনি দাবি করেন, সড়কটির বিটুমিনাস ও কার্পেটিং বিলম্বিত হওয়ার কারণ ক্যানেল-সেতু নির্মাণ ও কায়েকটি বৈদ্যুতিক খুটি অপসারণ ও নির্মাণ সামগ্রি পরিবহণ করতে না পারায় এ কাজ সমাপ্ত করতে কিছুটা বিলম্বিত হচ্ছে। তিনি পৌরসভার চলমান উন্নয়ন তরান্মিত করতে দলমত নির্বিশেষে সকলের সহযোগীতা কামনা করেছেন।

উল্লেখ্য, ১৯৮৮ সালের ৪ এপ্রিল ‘খ’ শ্রেণির অন্তর্ভূক্ত রেখে ঝিকরগাছা পৌরসভা গঠন করা হয়। ১ম সভা অনুষ্ঠিত হয় ২০০১ সালের ১৩ মে। পৌরসভার মোট আয়াতন ধরা হয় ৯.৪৩ বর্গকিলোমিটার। মোট জনসংখ্যা ৩১ হাজার ৩৫৩ জন। এর মধ্যে ১৬ হাজার ১৪২ জন পুরুষ ও ১৫ হাজার ২১১ জন মহিলা ভোটার রয়েছে। মোট হোল্ডিং সংখ্যা ৪ হাজার ৭৪৩টি। শিক্ষার আনুপাতিক হার ৬৯ শতাংশ। অবকাঠামো : পাঁকা রাস্তা কার্পেটিং ২১ দশমিক ৬০৮ কি:মি:, সলিং ৫ দশমিক ১০২ কি:মি:, এইচ বি বি রাস্তা ২০ দশমিক ৫০৯ কি:মি, সিসি রাস্তা ২ দশমিক ১২০ কি:মি:, কাচা রাস্তা ১২ দশমিক ৮৯৫ কি:মি:, আর সিসি ড্রেন ৩ দশমিক ৫৩০ কি:মি:, ব্রিক ড্রেন ৫ দশমিক ৪৪৪ কি:মি:, কাচা ড্রেন ৩ দশমিক ৫৬৫ কি:মি:।

বাংলাদেশ বাণী/কাসা/ডেস্ক/নি.প্রতি/কালাম/ঝিকরগাছা/৩০/০১/২০১৬. ১১:৪৫ (পিএম) ঘ.    
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত টিম এখন ঢাকায়বিএনপি-জামায়তের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধুর জন্য জাতিসংঘে সদরদপ্তরে প্রথমবারের মতো জাতীয় শোক দিবসক্রস ফায়ারের মাঝেও মানব পাচার! থেমে নেই অস্ত্র ও ইয়াবা ব্যবসারোববার কবি শামসুর রাহমানের ১৩ তম মৃত্যুবার্ষিকীঢাকা-দিল্লীর সম্পর্ক এখন নতুন উচ্চতায় : বাংলাদেশ হাইকমিশনারছয় বছর বয়সেই ইসি'র স্মার্টকার্ডবঙ্গবন্ধু বাংলার ইতিহাস : স্বাধীনতা বাঙ্গালীর সোনালী অর্জন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে জিয়ার যোগাযোগ ছিল : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে : আইনমন্ত্রী২২ আগস্ট শুরু হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাঙালীর বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জাতির জনক মাশরাফির অবসর নিয়ে দু'দিনের মধ্যেই আলোচনায় বসবে বিসিবিটুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনবঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক চেষ্টা চলছে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচনে ‘কমিশন’ গঠনের দাবি জানালেন তথ্যমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ও সর্বস্তরের জনতার বিনম্র শ্রদ্ধাজাতীয় শোক দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র বাণীআজ জাতীয় শোক দিবস : টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের অপরাধটা কি? সব খুনিদের বিচার হোক
  • রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত টিম এখন ঢাকায়বিএনপি-জামায়তের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধুর জন্য জাতিসংঘে সদরদপ্তরে প্রথমবারের মতো জাতীয় শোক দিবসক্রস ফায়ারের মাঝেও মানব পাচার! থেমে নেই অস্ত্র ও ইয়াবা ব্যবসারোববার কবি শামসুর রাহমানের ১৩ তম মৃত্যুবার্ষিকীঢাকা-দিল্লীর সম্পর্ক এখন নতুন উচ্চতায় : বাংলাদেশ হাইকমিশনারছয় বছর বয়সেই ইসি'র স্মার্টকার্ডবঙ্গবন্ধু বাংলার ইতিহাস : স্বাধীনতা বাঙ্গালীর সোনালী অর্জন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে জিয়ার যোগাযোগ ছিল : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে : আইনমন্ত্রী২২ আগস্ট শুরু হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাঙালীর বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জাতির জনক মাশরাফির অবসর নিয়ে দু'দিনের মধ্যেই আলোচনায় বসবে বিসিবিটুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনবঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক চেষ্টা চলছে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচনে ‘কমিশন’ গঠনের দাবি জানালেন তথ্যমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ও সর্বস্তরের জনতার বিনম্র শ্রদ্ধাজাতীয় শোক দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র বাণীআজ জাতীয় শোক দিবস : টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের অপরাধটা কি? সব খুনিদের বিচার হোক
উপরে