প্রকাশ : ৩১ অক্টোবর, ২০১৮ ০২:৩১:২৬
কেশবপুরে সাতবাড়িয়া বাজারে পশুহাট হওয়ায় এলাকাবাসির মাঝে স্বস্থি
বাংলাদেশ বাণী, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি : কেশবপুর উপজেলার সাতবাড়িয়া বাজারের পাশে একটি পশুহাট হওয়ায় এলাকাবাসির মাঝে স্বস্থি এসেছে। নবগঠিত সাতবাড়িয়া ১০ নং ইউনিয়নের এ বাজারে পশুহাটের পাশাপাশি গড়ে উঠেছে কাঁচা বাজার ও মাছ বাজার। ফলে সাতবাড়িয়া বাজারে এসব উন্নয়ন হওয়াতে ১’শ বছরের পরিবেশ ফিরে এসেছে। কিন্ত একটি কুচক্রিমহল এ উন্নয়নকে বানচাল করতে গভীর ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে

সরেজমিনে জানা যায়, ২০১৮ সালের মার্চ মাসে সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন দফাদার, আওয়ামী লীগ নেতা মশিয়ার রহমান দফাদার, আবদুর রশিদ, আবদুল আলীম ওরফে কিনু, মোজাহার হোসেন ও খলিলুর রহমানের সহযোগিতায়  সাতবাড়িয়া বাজারে পশুহাট, কাঁচা বাজার ও মাছ বাজার গড়ে তুলেছে।

সাতবাড়িয়া গ্রামের জামাল উদ্দিন, প্রদীপ দাস, জাহানপুর গ্রামের কালীপদ সরকার, সাতবাড়িয়া বাজারের চায়ের দোকানদার মুকুন্দ দাস জানান, সাতবাড়িয়া বাজারে পশুহাট হওয়ায় এলাকায় স্বস্তি ফিরে এসেছে। মানুষ যানবহনে স্বল্প খরচ ও পাশের মাধ্যমে গরু ছাগল ক্রয়-বিক্রয় করছে। ফলে সাতবাড়িয়া বাজারে এসব উন্নয়ন হওয়াতে ১’শ বছরের পরিবেশ ফিরে এসেছে। সপ্তাহের প্রতি শনি ও মঙ্গলবার এখানে হাট বসে।

এহাটে আশপাশের জাহানপুর, মির্জানগর, কোমরপোল, গোবিন্দপুর, রঘুরামপুর, কড়িয়াখালী, বাঁশবাড়িয়া, চালিতাবাড়িয়া, শ্রীরামপুর, মনিরামপুরের একাংশের চালুয়াহাটি, হাজরাকাটি, শয়লাসহ ৪০ থেকে ৪৫ গ্রামের মানুষ গরু, ছাগল বিক্রি করে থাকেন। প্রতি হাটের দিন প্রায় শতাধিক গরু ও ছাগল কেনা বেচা হয়ে থাকে এখানে।

গত শনিবার সাতবাড়িয়া পশুহাটে আসা বেশকিছু গরু ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, এ হাটে বিক্রি হওয়া প্রতিটি গরুর জন্য ২০০ টাকা এবং প্রতিটি ছাগলের জন্য ৫০ টাকা পাশ খরচ দিতে হয়। পশুহাটের সাধারণ সম্পাদক মশিয়ার রহমান দফাদার জানান, বৃহত্তর ত্রিমোহিণী ইউনিয়ন ভেঙ্গে দুটি ইউনিয়ন করেন সরকার।

ফলে নবগঠিত ১০ নং সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদে ও সাতবাড়িয়া বাজারটির উন্নয়নের সমস্যা দেখা দেয়। যার কারণে সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ,সাতবাড়িয়া বাজারের উন্নয়ন ও এলাকাবাসির সুবিধার্থে আমরা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে আলোচনা করে মৌখিক অনুমতি নিয়ে একটি পশুহাট,কাঁচাবাজার ও মাছ বাজার বসানো হয়েছে।

পশুহাট মালিক মশিয়ার রহমান দফাদার আরও বলেন, জেলা প্রশাসকের নামে ওই হাটের জন্য ২১ শতক জমি রেজিস্ট্রি করে দেয়া হয়েছে। ওই হাটের নিজস্ব ২১ শতক সম্পত্তি ছাড়াও আরও দেড় বিঘা জমি বর্গা নিয়ে তার ওপর এ হাটটি স্থাপন করা হয়। এখানে বিদ্যুতের  ব্যবস্থাসহ হাটুরেদের সুবিধার্থে হাটে একটি মসজিদ, দুটি চান্নি, বাথরুম ও অগভীর নলকুপ বসানো হয়েছে। কিন্ত একটি কুচক্রিমহল এ উন্নয়নকে বানচাল করতে গভীর ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে।

সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন দফাদার বলেন, এ ইউনিয়নের উন্নয়নের কথা চিন্তা করে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে আলোচনা করে একটি পশুহাট, কাঁচাবাজার ও মাছ বাজার বসানো হয়েছে। তাছাড়া এখানে একটি নতুন ইউনিয়ন পরষিদ ভবনের নির্মাণের কাজ চলছে। সাতবাড়িয়া বাজারে পশুহাট হওয়ায় এলাকাবাসির মাঝে স¦স্তি ফিরে এসেছে। এসব উন্নয়ন হওয়াতে ১’শ বছরের পরিবেশ ফিরে এসেছে এ ইউনিয়নে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানূর রহমান বলেন, নবগঠিত সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের নতুন ভবন নির্মাণের কার্য্যক্রম অব্যহত আছে। ওই বাজারটির উন্নয়নের সুবিধার্থে এ পশুহাট বসানোর অনুমতি দেয়া হয়। সম্প্রতি জেলা প্রশাসকের নামে সাতবাড়িয়া বাজারের ওই পশুহাটের জন্য ২১ শতক জমি রেজিস্ট্রি করে দেয়া হয়েছে। অবশিষ্ট কাজও প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
সর্বশেষ সংবাদ
  • রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত টিম এখন ঢাকায়বিএনপি-জামায়তের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধুর জন্য জাতিসংঘে সদরদপ্তরে প্রথমবারের মতো জাতীয় শোক দিবসক্রস ফায়ারের মাঝেও মানব পাচার! থেমে নেই অস্ত্র ও ইয়াবা ব্যবসারোববার কবি শামসুর রাহমানের ১৩ তম মৃত্যুবার্ষিকীঢাকা-দিল্লীর সম্পর্ক এখন নতুন উচ্চতায় : বাংলাদেশ হাইকমিশনারছয় বছর বয়সেই ইসি'র স্মার্টকার্ডবঙ্গবন্ধু বাংলার ইতিহাস : স্বাধীনতা বাঙ্গালীর সোনালী অর্জন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে জিয়ার যোগাযোগ ছিল : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে : আইনমন্ত্রী২২ আগস্ট শুরু হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাঙালীর বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জাতির জনক মাশরাফির অবসর নিয়ে দু'দিনের মধ্যেই আলোচনায় বসবে বিসিবিটুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনবঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক চেষ্টা চলছে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচনে ‘কমিশন’ গঠনের দাবি জানালেন তথ্যমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ও সর্বস্তরের জনতার বিনম্র শ্রদ্ধাজাতীয় শোক দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র বাণীআজ জাতীয় শোক দিবস : টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের অপরাধটা কি? সব খুনিদের বিচার হোক
  • রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত টিম এখন ঢাকায়বিএনপি-জামায়তের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধুর জন্য জাতিসংঘে সদরদপ্তরে প্রথমবারের মতো জাতীয় শোক দিবসক্রস ফায়ারের মাঝেও মানব পাচার! থেমে নেই অস্ত্র ও ইয়াবা ব্যবসারোববার কবি শামসুর রাহমানের ১৩ তম মৃত্যুবার্ষিকীঢাকা-দিল্লীর সম্পর্ক এখন নতুন উচ্চতায় : বাংলাদেশ হাইকমিশনারছয় বছর বয়সেই ইসি'র স্মার্টকার্ডবঙ্গবন্ধু বাংলার ইতিহাস : স্বাধীনতা বাঙ্গালীর সোনালী অর্জন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে জিয়ার যোগাযোগ ছিল : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে : আইনমন্ত্রী২২ আগস্ট শুরু হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাঙালীর বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জাতির জনক মাশরাফির অবসর নিয়ে দু'দিনের মধ্যেই আলোচনায় বসবে বিসিবিটুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনবঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক চেষ্টা চলছে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচনে ‘কমিশন’ গঠনের দাবি জানালেন তথ্যমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ও সর্বস্তরের জনতার বিনম্র শ্রদ্ধাজাতীয় শোক দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র বাণীআজ জাতীয় শোক দিবস : টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের অপরাধটা কি? সব খুনিদের বিচার হোক
উপরে