প্রকাশ : ১৯ এপ্রিল, ২০১৮ ০২:৪৪:১৪
তালায় ক্রসড্যাম স্থাপনে বিলম্ব-
২৬২ কোটি টাকার কপোতাক্ষ খনন প্রকল্প ভেস্তে যেতে বসেছে
বাংলাদেশ বাণী, মীর ইমরান মাহমুদ, তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : কপোতাক্ষ নদের নাব্যতা বৃদ্ধি ও জলাবদ্ধতা সমস্যা নিরসনে ২০১১ সালে শুরু হওয়া ২৬২ কোটি টাকা ব্যয়ে কপোতাক্ষ খনন প্রকল্পে গুরুত্বপূর্ন একটি ক্রসড্যাম স্থাপনে মন্থর গতির কারনে ভেস্তে যেতে বসেছে।
কপোতাক্ষের নাব্যতা ধরে রাখতে অতিদ্রুত ক্রসড্যাম স্থাপন, টিআরএম বিল ব্যবস্থাপনা ও পেরিফেরিয়াল বাঁধ সংস্কারের দাবিতে ফুঁসে উঠেছে স্থানীয় অধিবাসিরা।

এনিয়ে স্থানীয় পর্যায়ে সকল শ্রেনী পেশার মানুষ রাস্তায় নেমে আসলেও টনক নড়ছেনা পানি উন্নয়ন বার্ডের। কপোতাক্ষ নদের নাব্যতা বৃদ্ধি ও জলাবদ্ধতা সমস্যার সমাধানকল্পে সরকার বিগত ২০১১ সালে ‘কপোতাক্ষ নদের জলাবদ্ধতা দূরীকরণ প্রকল্পে (১ম পর্যায়)’ পাখিমারা বিলে টিআরএম স্থাপন ও প্রায় ৯০ কি.মি. নদ খনন করে।

টিআরএম চলাকালে মূল নদের উপর ক্রসড্যাম দিয়ে শুষ্ক মৌসুমে জোয়ারবাহিত পলি উপরাংশে না ঢুকিয়ে টিআরএম প্রকল্পের বিলে প্রবেশ করানো হয়। এরপর বর্ষা মৌসুমের শুরুতে বিস্তীর্ন জনপদের পানি নিষ্কাশনে তুলে দেয়া হয় ক্রসড্যাম।

প্রকল্পটি বাস্তবায়নের ফলে ২০১৬-১৭ সালে জলাবদ্ধতার হাত থেকে মুক্তি পায় কপোতাক্ষ অববাহিকার প্রায় ২০ লাখ মানুষ। তবে সর্বশেষ ক্রসড্যামটি অপসারণ হলেও নতুন করে তা স্থাপন না করায় প্রতিদিন জোয়ারবাহিত পলি টিআরএম এর উজান অংশে ঢুকে দ্রুত গতিতে নতুন করে ভরাট হচ্ছে নদের তলদেশ।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, গত বছরের ডিসেম্বর থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত শুষ্ক মৌসুমে নদীতে ক্রসড্যাম না দেয়ায় ভেস্তে যেতে বসেছে কপোতাক্ষ খননের মূল প্রকল্প। সূত্র জানায়, গত ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়ে ক্রস ড্যামটি ১৬ জুন পর্যন্ত স্থায়ী রাখতে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কার্যাদেশসহ প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয় পাউবো।

কিন্তু ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ড্যামটির নির্মাণ কাজ শুরু করলেও কাজের শম্ভুক গতির কারনে মার্চ মাস শেষ হলেও তা শেষ করা যায়নি। কাজের এমন মন্থর গতির বিষয়টিকে ভাল চোখে দেখছেন না জনপদের ভুক্তভোগি মানুষ।

তাদের দাবি, বিশেষ কারনে স্থানীয় কতিপয় ব্যক্তি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে প্রভাাবিত করে কাজের গতি বিলম্বিত করা হচ্ছে। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানও তা স্বীকার করে বলছেন, গভীর সমুদ্রে মৎস্য আহরন মৌসুম শেষে কপোতাক্ষ দিয়ে জেলেদের অসংখ্য নৌকা বাঁধাহীন ভাবে ঢুকাতে তাদের কাছ থেকে সুবিধা নিয়েই মূলত এলাকার কতিপয় স্বার্থান্বেষী জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করে তাদের এ কাজকে বাঁধা গ্রস্থ করছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় ভুক্তভোগিরা জানান, তালার কিছু নামধারী ক্যাডার জেলেদের প্রায় ৪’শ নৌকা থেকে চুক্তির মাধ্যমে টাকা আদায় করে ক্রসড্যাম দেয়ার কাজকে নানাভাবে বাঁধা গ্রস্থ করছে।

অন্যদিকে, বর্ষা মৌসুমের পূর্বেই পাখিমারা টিআরএম বিলের চারিধারের পেরিফেরিয়াল বাঁধের জরুরী সংস্কার দাবি করেছেন বিল অধিবাসীরা।এর আগে পেরিফেরিয়াল বাঁধ ভেঙ্গে পার্শ্ববর্তী কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত হয়ে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয় মানুষ।

সর্বশেষ টিআরএম প্রকল্পের নিকটবর্তী ক্রসড্যাম স্থাপনে বিলম্ব হওয়ায় মূল প্রকল্পটিকে হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছে বলে ধারণা সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের। প্রকল্পটির সঠিক সুফল পেতে সংযোগ খালের মাধ্যমে বেসিনের দূরবর্তী পশ্চিমাংশে যাতে অপেক্ষাকৃত বেশি পরিমানে পলি অবক্ষেপিত হতে পারে তার ব্যবস্থা করা জরুরী।

এলাকাবাসীর পক্ষে অতিদ্রুত পাখিমারা টিআরএম বিলের বালিয়া কাটপয়েন্টে নদীর উজানমুখে ক্রসড্যাম স্থাপন, জরুরীভাবে পাখিমারা টিআরএম বিলের পেরিফেরিয়াল বাঁধ সংস্কার, পাখিমারা টিআরএম বেসিনের দূরবর্তী পশ্চিমাংশে পলি অবক্ষেপনের ব্যবস্থা করা এবং ডিসেম্বর-জানুয়ারীতে শুষ্ক মৌসুমের শুরুতে নদীতে ক্রসড্যাম না দিয়ে তিন মাস পর ক্রসড্যাম দেয়ার কারন তদন্ত করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট দাবি জানিয়েছেন। সাথে সাথে প্রকল্পের দ্বিতীয় পর্যায় দ্রুত শুরু করারও দাবী জানানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে পাউবোর কেশবপুর পওর শাখার এসও ফিরোজ আহম্মেদের নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, মার্চের মধ্যেই ক্রসড্যামটি নির্মিত হওয়ার কথা। কাজ বিলম্বের ব্যাপারে তিনি বলেন, কারন যদি হয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান তবে তদন্ত পূর্বক অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের পক্ষে শামীম চাকলাদার বাবু বলেন, স্থানীয়দের কারণেই কাজটি বিলম্বিত হচ্ছে।
 
সর্বশেষ সংবাদ
  • আজ থেকে সিয়াম-সাধনার মাস পবিত্র মাহে রমজান শুরুবাংলার লাল-সবুজের কন্যা শেখ হাসিনার ৩৮ তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালনপ্রাকৃতিক দুর্যোগে আঘাতপ্রাপ্তদের বেশি সহায়তা প্রদানের পরামর্শ সায়মা ওয়াজেদেরআগামীকাল শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে পবিত্র মাহে রমজানআবারও খুলনার নগরপিতা হলেন তালুকদার আব্দুল খালেক২৬ জুন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের নতুন তারিখ ঘোষণা জাতীয় সংসদের স্পিকার সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরেছেনঐতিহাসিক স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-১’ উৎক্ষেপণ করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ : বাংলাদেশের ৫৭ তম দেশের মর্যাদা অর্জনযথাযোগ্য মর্যাদার সাথে বিশ্বকবি রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী পালিতব্যয় ধরা হয়েছে ১৩ হাজার ২৮৮ কোটি টাকা-একনেকে'র সভায় খুলনা-দর্শনা ডাবল লাইন রেলওয়েসহ ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনআজ প্রকাশিত হবে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল নাটকে প্রতিফলিত হতে থাকে ঐতিহাসিক ও সমসাময়িক ঘটনাবলি : স্পিকারআজ ঢাকায় শুরু হচ্ছে ওআইসি পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের ৪৫ তম সম্মেলনভারতে চলতি সপ্তাহে একের পর এক শক্তিশালী ঝড়ের আঘাত : নিহত ১৫০আজকের আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ ও শিলাবৃষ্টি হতে পারে।আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্ত ভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।তাজিকিস্তান রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশকে সব রকম সহযোগিতা দেবেসাম্প্রদায়িক ও অশুভ শক্তিকে রুখে দেবার অঙ্গীকার নিয়ে বাংলা বর্ষ বরণউন্নয়নশীল দেশের যোগ্যতা অর্জনের ঘোষণায় সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে ধন্যবাদ প্রস্তাব গ্রহণ
  • আজ থেকে সিয়াম-সাধনার মাস পবিত্র মাহে রমজান শুরুবাংলার লাল-সবুজের কন্যা শেখ হাসিনার ৩৮ তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালনপ্রাকৃতিক দুর্যোগে আঘাতপ্রাপ্তদের বেশি সহায়তা প্রদানের পরামর্শ সায়মা ওয়াজেদেরআগামীকাল শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে পবিত্র মাহে রমজানআবারও খুলনার নগরপিতা হলেন তালুকদার আব্দুল খালেক২৬ জুন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের নতুন তারিখ ঘোষণা জাতীয় সংসদের স্পিকার সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরেছেনঐতিহাসিক স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-১’ উৎক্ষেপণ করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ : বাংলাদেশের ৫৭ তম দেশের মর্যাদা অর্জনযথাযোগ্য মর্যাদার সাথে বিশ্বকবি রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী পালিতব্যয় ধরা হয়েছে ১৩ হাজার ২৮৮ কোটি টাকা-একনেকে'র সভায় খুলনা-দর্শনা ডাবল লাইন রেলওয়েসহ ১৩টি প্রকল্প অনুমোদনআজ প্রকাশিত হবে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল নাটকে প্রতিফলিত হতে থাকে ঐতিহাসিক ও সমসাময়িক ঘটনাবলি : স্পিকারআজ ঢাকায় শুরু হচ্ছে ওআইসি পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের ৪৫ তম সম্মেলনভারতে চলতি সপ্তাহে একের পর এক শক্তিশালী ঝড়ের আঘাত : নিহত ১৫০আজকের আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ ও শিলাবৃষ্টি হতে পারে।আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্ত ভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।তাজিকিস্তান রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশকে সব রকম সহযোগিতা দেবেসাম্প্রদায়িক ও অশুভ শক্তিকে রুখে দেবার অঙ্গীকার নিয়ে বাংলা বর্ষ বরণউন্নয়নশীল দেশের যোগ্যতা অর্জনের ঘোষণায় সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে ধন্যবাদ প্রস্তাব গ্রহণ
উপরে