প্রকাশ : ০৬ নভেম্বর, ২০১৮ ০৪:০০:২২
লাভজনক কৃষি : সুন্দরগঞ্জে সিম চাষে আগ্রহী হয়ে উঠছে কৃষক
বাংলাদেশ বাণী, মোঃ হযরত বেল্লাল, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি : অল্প খরচে অধিক লাভের আশায় বিভিন্ন জাতের সিম চাষে আগ্রহী হয়ে উঠছে সব শ্রেণির কৃষকরা। বসত বাড়ির উঠান, পরিত্যক্ত জমি, বাগানের ফাঁকা জায়গায় এমনকি আবাদি জমিতে ইদানিং সিম চাষ করে অধিক লাভবান হচ্ছে কৃষকরা। বিশেষ করে তিস্তার চরাঞ্চলে অনেক প্রান্তিক কৃষক জমি বর্গা নিয়ে সিমসহ বিভিন্ন তরিতরকারি চাষাবাদ করছে।

অনেকে রাসয়ানিক সার ব্যবহার না করে কম্পোষ্ট সার ব্যবহার করে বিষমুক্ত সিম চাষ করছে। গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে ফিরে দেখা গেছে কৃষকরা এখন ধান চাষাবাদ না করে বিভিন্ন মৌসুমে ভিন্ন জাতের শাক সবজি ও তরিতরকারি চাষাবাদে ঝুকে পড়ছে। কথা হয় উপজেলার দহবন্দ ইউনিয়নের দক্ষিণ ধুমাইটারী গ্রামের সিম চাষি আমিনুল ইসলামের সাথে। তিনি বলেন, চলতি মৌসুমে তিনি ৪৫ শতক জমিতে সিম চাষ করেছেন। এ পর্যন্ত তার খরচ হয়েছে ২০ হাজার টাকা। গত ১৫ দিন হতে তিনি সিম বিক্রি শুরু করেছেন।

ইতিমধ্যে তিনি ৫ হাজার টাকার সিম বিক্রি করেছেন। তিনি আশাবাদি যদি কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হয় তাহলে ওই জমির সিম বিক্রি করে ১ লাখ টাকা লাভ করবেন। তিনি আরও বলেন, দিন-দিন সিমের বাজারদর বেড়েই চলছে। সুন্দরগঞ্জ বাজারের কাঁচামাল ব্যবসায়ী হামিদুল ইসলাম জানান, বর্তমান বাজারে প্রতি কেজি সিম বিক্রি হচ্ছে ৮০ হতে ১’শ টাকা দরে।

কয়েক দিনের মধ্যে বাজারদর কমে যাবে। উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রাশেদুল ইসলাম জানান, শাক সবজি ও তরিতরকারি চাষাবাদে অধিক লাভ। সে কারণে কৃষকরা দিন দিন এসব চাষাবাদে ঝুকে পড়ছে। তাছাড়া এসব চাষাবাদে পরিশ্রম এবং খরচও কম হয়।
সর্বশেষ সংবাদ
  • রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত টিম এখন ঢাকায়বিএনপি-জামায়তের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধুর জন্য জাতিসংঘে সদরদপ্তরে প্রথমবারের মতো জাতীয় শোক দিবসক্রস ফায়ারের মাঝেও মানব পাচার! থেমে নেই অস্ত্র ও ইয়াবা ব্যবসারোববার কবি শামসুর রাহমানের ১৩ তম মৃত্যুবার্ষিকীঢাকা-দিল্লীর সম্পর্ক এখন নতুন উচ্চতায় : বাংলাদেশ হাইকমিশনারছয় বছর বয়সেই ইসি'র স্মার্টকার্ডবঙ্গবন্ধু বাংলার ইতিহাস : স্বাধীনতা বাঙ্গালীর সোনালী অর্জন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে জিয়ার যোগাযোগ ছিল : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে : আইনমন্ত্রী২২ আগস্ট শুরু হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাঙালীর বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জাতির জনক মাশরাফির অবসর নিয়ে দু'দিনের মধ্যেই আলোচনায় বসবে বিসিবিটুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনবঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক চেষ্টা চলছে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচনে ‘কমিশন’ গঠনের দাবি জানালেন তথ্যমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ও সর্বস্তরের জনতার বিনম্র শ্রদ্ধাজাতীয় শোক দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র বাণীআজ জাতীয় শোক দিবস : টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের অপরাধটা কি? সব খুনিদের বিচার হোক
  • রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত টিম এখন ঢাকায়বিএনপি-জামায়তের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধুর জন্য জাতিসংঘে সদরদপ্তরে প্রথমবারের মতো জাতীয় শোক দিবসক্রস ফায়ারের মাঝেও মানব পাচার! থেমে নেই অস্ত্র ও ইয়াবা ব্যবসারোববার কবি শামসুর রাহমানের ১৩ তম মৃত্যুবার্ষিকীঢাকা-দিল্লীর সম্পর্ক এখন নতুন উচ্চতায় : বাংলাদেশ হাইকমিশনারছয় বছর বয়সেই ইসি'র স্মার্টকার্ডবঙ্গবন্ধু বাংলার ইতিহাস : স্বাধীনতা বাঙ্গালীর সোনালী অর্জন বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে জিয়ার যোগাযোগ ছিল : প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে : আইনমন্ত্রী২২ আগস্ট শুরু হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাঙালীর বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জাতির জনক মাশরাফির অবসর নিয়ে দু'দিনের মধ্যেই আলোচনায় বসবে বিসিবিটুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনবঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক চেষ্টা চলছে : ওবায়দুল কাদেরবঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচনে ‘কমিশন’ গঠনের দাবি জানালেন তথ্যমন্ত্রীবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ও সর্বস্তরের জনতার বিনম্র শ্রদ্ধাজাতীয় শোক দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী'র বাণীআজ জাতীয় শোক দিবস : টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীবঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের অপরাধটা কি? সব খুনিদের বিচার হোক
উপরে